এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > অলিগড়ে ৩ বছরের শিশুকন্যার নৃশংস হত্যাকাণ্ডে উত্তাল গোটা দেশ! সাসপেন্ড ৫ পুলিশকর্মী

অলিগড়ে ৩ বছরের শিশুকন্যার নৃশংস হত্যাকাণ্ডে উত্তাল গোটা দেশ! সাসপেন্ড ৫ পুলিশকর্মী

অলিগড়ে তিন বছরের এক শিশুকন্যাকে পাশবিক খুনের ঘটনায় ৫ পুলিশকর্মীকে সাসপেন্ড করা হলো। সাসপেন্ড হওয়া পুলিশ কর্মীদের মধ্যে রয়েছেন একজন এসএইচও বলে জানা গেছে। জাহিদ ও আসলাম নামে দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে এই ঘটনায়। তারা জেরায় স্বীকার করেছে অপরাধের কথা। এস এস পি আকাশ কুলারি জানিয়েছেন, জাতীয় নিরাপত্তা আইনে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে ধৃতদের বিরুদ্ধে।

প্রসঙ্গত, তিন বছরের এই শিশু কন্যার ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার হয় জঞ্জালের গাদা থেকে। যার জেরে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। শিশুটির বাবা বনোয়ারিলাল শর্মা ১২ হাজার টাকা ধার শোধ করতে পারেননি। তদন্তে জানা যায়, এই কারণেই এই নারকীয় ঘটনা ঘটিয়েছে জাহিদ ও আসলাম নামে দুই অভিযুক্ত। এই বর্বরোচিত ঘটনার প্রতিবাদে গোটা দেশেই নিন্দার ঝড় শুরু হয়েছে।

এসএসপি আকাশ কুলারি জানান, ৫ পুলিশকর্মীকে কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে সাসপেন্ড করা হয়েছে। যার রিপোর্ট দিয়েছেন সার্কেল অফিসার পঙ্কজ শ্রীবাস্তব। ওই পুলিশকর্মীরা শিশুটি নিখোঁজ হওয়ার পর মামলা দায়ের করতে গড়িমসি করেছিলেন। তাছাড়াও, তদন্তের কাজেও গা-ছাড়া মনোভাবের অভিযোগ উঠেছে ওই সব পুলিশ কর্মীদের বিরুদ্ধে। নিখোঁজ হওয়ার চার দিন পর শিশুটির ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার হয়েছে জঞ্জালের গাদা থেকে।

হাতের মুঠোয় আরও সহজে প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে যোগ দিন –

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

এদিকে শিশুটির বাবার অভিযোগ, দুই অভিযুক্তের পরিবারের সদস্যরাও এই অপরাধের সঙ্গে যুক্ত। তাদের গ্রেপ্তারের দাবিতে আমরণ অনশন শুরু করার হুমকি দেন এই সন্তান হারা পিতা। এই পরিস্থিতিতে এসএসপি কুলারি তাঁর সঙ্গে কথা বলে, দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়ে অনশন থেকে বিরত করেন তাঁকে। ফাস্ট-ট্রাক আদালতে দুই অভিযুক্তের বিচার হওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন কুলারি। ফলে জাতীয় নিরাপত্তা আইনে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই, ছয় সদস্যের সিট গঠন করা হয়েছে তদন্তের কাজ দ্রুত শেষ করার লক্ষ্যে। এক মহিলা পুলিশ অফিসারকেও রাখা হয়েছে, এর সদস্য হিসাবে। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এই অমানবিক খুনের ঘটনায় দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি তুলেছেন। ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধীও। প্রসঙ্গত, গত ৩০ শে মে আলিগড়ের তাপ্পল থানা এলাকায় শিশুটি নিখোঁজ হয়। পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে বাধা দেওয়া ও তদন্তের প্রক্রিয়ায় বাধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে।

এর চার দিন পর গত ২ রা জুন ক্ষতবিক্ষত অবস্থায় দেহ উদ্ধার হওয়ায় পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ চরমে পৌঁছয়, উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ইতিমধ্যেই সারাদেশে নিন্দার ঝড় উঠেছে। বাবা ধার মেটাতে না পারায় একটি শিশু কন্যাকে এইরকম নৃশংস ভাবে খুন করার ঘটনায় চমকে উঠেছে গোটা দেশ। তবে পুলিশ জানিয়েছে, ময়নাতদন্তের রিপোর্টে কোন রকম যৌন নির্যাতনের প্রমাণ মেলেনি, শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে শিশুটিকে। এলাকায় এখনও উত্তেজনা রয়েছে, সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে অতিরিক্ত নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে সেখানে।

Top
error: Content is protected !!