এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মোষ-চোর সন্দেহে গণপিটুনিতে মৃত দুই মুসলিম যুবকের ‘হত্যাকারীদের’ পাশে দাঁড়ালেন বিজেপি সাংসদ

মোষ-চোর সন্দেহে গণপিটুনিতে মৃত দুই মুসলিম যুবকের ‘হত্যাকারীদের’ পাশে দাঁড়ালেন বিজেপি সাংসদ

সম্প্রতি ঝাড়খণ্ডের গোড্ডা জেলার দুল্লু গ্রামে ঐ এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা মোষ চোর সন্দেহে  দু’জনকে পিটিয়ে মারার ঘটনায় সারা দেশেররাজ্য রাজনীতিতে ঝড় উঠেছিল। সংখ্যালঘু ইসলাম ধর্মাবলম্বী ঐ দুই যুবকের গণ পিটুনীর ঘটনা স্বাভাবিকভাবেই জনমানষে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার জন্ম দেয়। একইসাথে অভিযুক্তদের শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছে বিরোধী দলগুলি। এদিকে অবিশ্বাস্য ভাবেই এই কাণ্ডে অভিযুক্তদের শাস্তির দাবি না জানিয়ে উলটে তাদের কার্যকলাপে সম্মতি জানিয়ে বিতর্কের কেন্দ্রে এলেন বিজেপি সাংসদ নিশিকান্ত দুবে। প্রসঙ্গত একটি সর্ব ভারতীয় সংবাদপত্রে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বললেন, গণপিটূনীতে অংশগ্রহনকারী চার অভিযুক্তের যাবতীয় আইনি খরচ বহন করবেন তিনি নিজেই। দুল্লু গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দাদের থেকে জানা যাচ্ছে গ্রামেরই এক অধিবাসীর বাড়ি থেকে ১৩টি মোষ চুরি হয়ে যায়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

পরদিন সকালে ১৩টি মোষ চুরির নেপথ্যে সিরাবুদ্দিন আনসারি ও মোর্তাজা আনসারি নামক জনৈক যুবকেরা রয়েছে সন্দেহে স্থানীয় অধিবাসীরা তাদের আক্রমন করে। বানকাট্টি এলাকায় তাঁদের বাড়িতে মোষগুলি দেখাও গিয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে আক্রান্তদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার উদ্যোগ নেয় পুলিশ। কিন্তু তার আগেই  দুই যুবক মারা যায়। পুলিশ এই ঘটনায় স্বতঃপ্রণোদিত অভিযোগ দায়ের করে। এরমধ্যেই পুলিশ  ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে এবং বাকিদের খোঁজ চলছে বলে জানা গিয়েছে। বিজেপির স্থানীয় সাংসদ নিশিকান্ত দুবে অবশ্য অভিযুক্ত ৪ জন গ্রামবাসীকে তাঁর সমর্থনের কারণ ব্যাখ্যা করে বললেন তাঁর এই সিদ্ধান্ত তাঁর একান্ত ব্যক্তিগত, এর ওপরে দল বা দলের অন্য কোনো নেতা মন্ত্রীর কোনো ভূমিকা নেই। তিনি মনে করেন গণপিটুনির ঘটনায় সকল গ্রামবাসীই প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ ভাবে জড়িত তাই শুধু মাত্র এই ৪ জনকে শাস্তি দেওয়া অন্যায়। সবদিক বিবেচনা করেই তিনি ঐ চার জন অভিযুক্তের পাশে থাকার চেষ্টা করছেন মাত্র।

Top
error: Content is protected !!