এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য

নেত্রীর নির্দেশ অমান্য করে ‘বদলা’র ডাক দিলেন তৃণমূল বিধায়ক, জল্পনা তুঙ্গে

2011 সালে বামেদেরকে সরিয়ে ক্ষমতায় বসে তৃণমূল কংগ্রেস। দীর্ঘদিন ধরে বিরোধী আসনে থাকা তৃণমূলের নেতারা তখন বামেদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার আগুনে ফুঁসছিল। কিন্তু সেই সময় তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর দলের সমস্ত নেতাকর্মীদের হাত বেঁধে রেখেছিলেন। "বদলা নয়, বদল চাই" স্লোগান দিয়ে বিরোধীরা যদি কোন রকম অশান্তিও করে, তাহলে

দেবশ্রী প্রসঙ্গে ফের চড়ছে পারদ, বিজেপিতে বিধায়কের যোগদান নিয়ে আর আপত্তি নেই শোভনের, গোঁসা বৈশাখীর

বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিজেপির প্রতি ক্ষোভ সামনে আসতে শুরু করেছিল। গেরুয়া শিবিরের নাম লেখালেও মঙ্গলবারই কলকাতা পৌরসভার প্রাক্তন মেয়রের বান্ধবী জানিয়ে দিয়েছিলেন যে, অপমান সহ্য করে তিনি রাজনীতি করবেন না। আর এবার রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়ের বিজেপিতে যোগদানের সম্ভাবনা জোরালো হয়ে উঠলে

প্রতি মুহূর্তেই দিলীপ ঘোষের নাম দিলেও মুকুল রায়ের নাম একবারও নিচ্ছেন না শোভন? জোর জল্পনা রাজ্যে

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দিয়ে শুরু করে অমিত শাহ, জগৎপ্রকাশ নাড্ডা, অরবিন্দ মেনন, অরুণ সিং এবং বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নাম দিয়ে বিজেপিতে প্রবেশ করে মন্তব্য করেছেন প্রাক্তন তৃণমূল নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে তারই প্রাক্তন দলের প্রাক্তন সৈনিক তথা তার আগে বিজেপিতে যোগ দেওয়া মুকুল রায়ের নাম একবারের জন্য

২০২১ এর ভোটে বিধায়ক পদ নিয়ে বিস্ফোরক বিজেপি নেত্রী, জেনে নিন

কিছুদিন আগেই লোকসভা নির্বাচন সমাপ্ত হয়েছে। যে নির্বাচনের ফলাফলে দেখা গেছে রাজ্যের শাসকদল তৃনমূলকে অনেকটাই বেগ দিয়েছে বিজেপি। একলাফে নিজেরা ১৮ টি আসন দখল করে তৃনমূলকে 22 টিতে নামিয়ে দিয়েছে। আর তৃনমূলের ভরাডুবির পরই দিকে দিকে শাসকদলের জনস্রোত হারাতে শুরু করে বলে দাবি বিশ্লেষকদের। আর এই পরিস্থিতিতে যখন সামনেই বিধানসভা নির্বাচন,

বিধানসভার ওপিনিয়ন – এই মুহূর্তে ভোট হলে কি হতে পারে পূর্ব-মেদিনীপুর জেলার চিত্র?

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ - সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের পর - আরও জমজমাট বঙ্গভূমির রাজনৈতিক লড়াই। একদিকে, লোকসভায় ১৮ টি আসন ছিনিয়ে নিয়ে গেরুয়া শিবির তাল ঠুকছে, এবার তাদের লক্ষ্য নবান্নের অধিকার ছিনিয়ে নেওয়া। অন্যদিকে, স্বয়ং দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধরেছেন দলের সাংগঠনিক হাল, সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রশান্ত কিশোরের মস্তিস্ক। এই পরিস্থিতিতে নিঃসন্দেহে

জটিল হচ্ছে রহস্য, কার ইশারায় বিজেপির সদর দপ্তরে গিয়েছিলেন দেবশ্রী

কিছুদিন আগেই দিল্লীতে তৃনমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একদা প্রিয় কানন তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী এবং প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং তার বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। আর শোভনবাবু ও বৈশাখীদেবীর বিজেপিতে যোগদানের দিনই দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়ের উপস্থিতি দেখতে পাওয়া যায়। আর তারপর থেকেই সেই দেবশ্রী

হসপপিটাল থেকে ছাড়া পেলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় – জানুন বিস্তারিত

আজ হসপিটাল থেকে ছাড়া পেলেন প্রখ্যাত অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। গত ১৪ ই আগষ্ট তিনি ফুসফুসে সংক্রমণ নিয়ে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন। চিকিৎসরা জানিয়েছেন, তার যে ফুসফুসে সংক্রমণ ছিল সেটা সারিয়ে ফেলা হয়েছে। তবে তাকে এখনও ইনহেলার নিয়ে থাকতে হবে। এর পাশাপাশি তাকে ভ্যাক্সিনেশন নিতে হবে এবং তাকে সেই ভ্যাক্সিনেশন

ফের বড়সড় অস্বস্তিতে মুকুল রায়, 40 লক্ষ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে, দায়ের এফআইআর

কয়েকদিন আগেই একটি মামলায় আদালত থেকে স্বস্তি পেয়েছেন তিনি। মাস ঘুরতে না ঘুরতেই আবার বড়োসড় অস্বস্তি মুখে পড়লেন একদা তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড এবং বর্তমান বঙ্গ বিজেপি চাণক্য নামে পরিচিত মুকুল রায়। জানা যাচ্ছে, রিলিফ স্থায়ী কমিটির সদস্য পদ পাইয়ে দেওয়ার জন্য দফায় দফায় 40 লক্ষ টাকার ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ

বৈশাখীর ব্যবহারে ক্ষোভ বাড়ছে বিজেপির অন্দরে, জোর চাঞ্চল্য রাজ্য বিজেপিতে

রাজ্য-রাজনীতিতে অনেক জল্পনা-কল্পনার যোগ-বিয়োগ ঘটিয়ে অবশেষে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন এই মুহূর্তে বঙ্গ-রাজনীতির অন্যতম 'চর্চিত জুটি' শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু যোগদানের পর থেকেই বৈশাখীদেবীকে নাকি সামলাতে রীতিমতো বেগ পেতে হচ্ছে রাজ্য বিজেপিকে - বলে শুরু হয়েছে তুমুল জল্পনা। শুরুটা হলো এদিন যখন রাজ্য বিজেপির মিডিয়া সেল শোভন চট্টোপাধ্যায়কে রাজ্য

বিধানসভার ওপিনিয়ন – এই মুহূর্তে ভোট হলে কি হতে পারে হুগলি জেলার চিত্র?

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ - সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের পর - আরও জমজমাট বঙ্গভূমির রাজনৈতিক লড়াই। একদিকে, লোকসভায় ১৮ টি আসন ছিনিয়ে নিয়ে গেরুয়া শিবির তাল ঠুকছে, এবার তাদের লক্ষ্য নবান্নের অধিকার ছিনিয়ে নেওয়া। অন্যদিকে, স্বয়ং দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধরেছেন দলের সাংগঠনিক হাল, সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রশান্ত কিশোরের মস্তিস্ক। এই পরিস্থিতিতে নিঃসন্দেহে

Top
error: Content is protected !!