এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > স্লোগান বিতর্কে নয়া মোড়, মমতাকে “পাড়ার খেনতি বুড়ির” সঙ্গে তুলনা করে কটাক্ষ মুকুলের

স্লোগান বিতর্কে নয়া মোড়, মমতাকে “পাড়ার খেনতি বুড়ির” সঙ্গে তুলনা করে কটাক্ষ মুকুলের

বাংলায় জয় শ্রীরাম স্লোগান এখন প্রবল আতঙ্কের কারণ। কিছুদিন আগেই চন্দ্রকোনা রোডের পর নৈহাটি এবং ভাটপাড়া দিয়ে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের কনভয় গেলে যুবক জয় শ্রীরাম স্লোগান দিতে থাকে। আর এরপরই সেই যুবকদের উদ্দেশ্যে তৃণমূল নেত্রী বলেন, “এই ক্রিমিনাল পালাচ্ছিস কেন! সামনে আয়, হরিদাস সব, আমাকে গালাগালি দিচ্ছে!”

এদিকে রামের নামে ধ্বনী দেওয়াটাকে গালিগালাজ হিসেবে ধরে নেওয়ায় বিজেপির তরফেও এই ঘটনাকে ইস্যু করে তীব্র সোচ্চারের ঘটনা সামনে আসে। আর যে ঘটনা নিয়ে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। আর এবার এই জয় শ্রীরাম স্লোগান নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আচরণকে করা ভাষায় নিন্দা করলেন বঙ্গ বিজেপির চাণক্য মুকুল রায়।

এদিন এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন “পাড়ায় খেন্তি বুড়িকে যখন কেউ ক্ষেপায়, সঙ্গে সঙ্গে সে গালাগালি দেয়, আবার যদি সেই বুড়ি দূরে যায়, আবার তাকে ক্ষ্যাপায়, আর ওই বুড়ি আবার গালাগালি দেয়।” আর মুকুল রায়ের এই মন্তব্য থেকেই অনেকে ভাবছেন, তাহলে পাড়ায় কচিকাঁচারা যেভাবে বয়স্ক মানুষদের রাগালে সেই বয়স্ক মানুষরা যেভাবে রেগে যান, বর্তমান রাজনীতিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে কেউ জয় শ্রীরাম বলে মন্তব্য করলেও সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রেগে যান। আর এক ঘটনার আরেক ঘটনার সাদৃশ্য রয়েছে বলেই এদিন বোঝানোর চেষ্টা করলেন বিজেপির এই হেভিওয়েট নেতা।

হাতের মুঠোয় আরও সহজে প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে যোগ দিন –

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

এদিকে বিজেপি এবারের লোকসভা নির্বাচনে সারাদেশে ব্যাপক ফলাফল করলে ইভিএমে কিছু সমস্যা রয়েছে বলে সরব হতে দেখা যায় তৃণমূলকে। গতকালই মন্ত্রী, বিধায়কদের নিয়ে বৈঠকের পর ইভিএম থেকে ব্যালটে ফেরার দাবিতে আন্দোলন কর্মসূচি পালন করা হবে বলে জানিয়ে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন সেই প্রসঙ্গে পাল্টা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে খোঁচা দেন মুকুল রায়। তিনি বলেন, “এই ইভিএমই 2011 সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রী বানিয়েছে। 2016 সালে তিনি জয়ী হয়েছেন। 2014 সালে তৃণমূলের আসন বাড়াতে শুরু করে। আর এখন তিনি হেরে যাওয়ায় ইভিএমের বিরুদ্ধে সরব হচ্ছেন। আসলে ওনার কাছে জিতলে ইভিএম ভাল, কিন্তু হারলে ইভিএম খারাপ। জনগণ এখন তৃণমূলকে আর ভালোভাবে নিচ্ছে না।”

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, বর্তমানে জয় শ্রীরামকে ঘিরে যেভাবে বঙ্গ রাজনীতি উত্তাল হয়েছে, তাতে এদিন সেই প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে আক্রমনাত্মক ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে বঙ্গ রাজনীতিকে আরও জড়িয়ে দিলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়।

Top
error: Content is protected !!