এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "Mamata Banerjee"

বাংলার পরিস্থিতি নিয়ে মোদী এবং শাহকে রিপোর্ট দিলেন রাজ্যপাল, এক ঘন্টারও বেশি বৈঠক, জল্পনা তুঙ্গে

রাজ্যের প্রশাসনিক পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে কেন্দ্র সরকারের আলোচনা অত্যন্ত স্বাভাবিক একটা বিষয়। আইনত রাজ্যপাল হল রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান এবং রাজ্যে নিযুক্ত কেন্দ্র সরকারের দূতও বটে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে রাজ্য সরকারের সঙ্গে কেন্দ্র সরকারের বিবাদ যখন নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং রাজনৈতিক দলগত অবস্থানের দিক থেকেও কেন্দ্রের শাসক দল ভারতীয় জনতা

হাওড়ায় মুখ্যমন্ত্রীর কোপে ফিরহাদ হাকিম, অরূপ রায় – জানুন বিস্তারিত

আজ হাওড়ায় মুখ্যমন্ত্রী প্রশাসনিক বৈঠক করেন দলের নেতা এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের নিয়ে। সেখানেই কাজ না করার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর রোষে পড়েন ফিরহাদ হাকিম, অরূপ রায় ।মুখ্যমন্ত্রী কড়া ভাষায় জানতে চান ‘নিজের ওয়ার্ড কেন দেখছেন না কাউন্সিলররা?’ হাওড়ার নিকাশি ব্যবস্থা ঠিক নেই কেন সে প্রশ্নও করেছেন।অরূপ রায়কে ধমক দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তোমার

লগ্নি ১৩ হাজার কোটি, নতুন করে 2 লক্ষ কর্মসংস্থানের আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির

2011 সালে রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বড় শিল্প অপেক্ষা ক্ষুদ্র এবং মাঝারি শিল্পের প্রতিই বেশি জোর দিতে দেখা গিয়েছিল রাজ্যের বর্তমান মা মাটি মানুষের সরকারকে। যা নিয়ে অনেকে রাজ্যের শিল্পনীতির দিকে প্রশ্নও ছুড়ে দিয়েছিলেন। তবে এবার রাজ্যের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে বিপুল লগ্নির কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের

বিজেপিতে যোগ দিতেই কোপের মুখে শোভন, তৃণমূল সরকারের বড়সড় সিদ্ধান্ত তাঁকে ঘিরে

দীর্ঘ জল্পনার পর গত ১৪ ই অগাস্ট দিল্লিতে বিশেষ বান্ধবী বৈশাখীকে নিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন শোভন চ্যাটার্জী।আর তারপরেই তাঁকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেই তৃণমূল। এবার ফের শোভনের উপর পড়লো কোপ। জানা যাচ্ছে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে নেওয়া হল এদিন। মন্ত্রিত্ব ও মেয়র পদ চলে যাওয়ার পর শুধুমাত্র বিধায়ক হিসেবে নিরাপত্তা পেতেন

বিজেপিকে চাপে ফেলতে নয়া কৌশল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, জোর গুঞ্জন

লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই যেন বাংলার রাজনীতি ধর্মকে নিয়ে আবর্তিত হতে শুরু করেছে। কখনও জয় শ্রীরাম এবং তার পাল্টা জয় হিন্দ, আবার কখনও বা মা দুর্গাকে নিয়ে শাসক বিরোধীদের মধ্যে টানাটানি, বঙ্গ রাজনীতিতে আশ্চর্য এই রেওয়াজ হয়ত কখনও কেউ দেখেনি, কিন্তু বর্তমানে তা চরম আকার ধারণ করেছে। রাজ্যের বিরোধী

মান অভিমান মিটছে না কিছুতেই, ক্রমশ দূরে যাচ্ছেন শোভন, পদ থেকে ইস্তফা কাননের

যত দিন যাচ্ছে ততই যেন দলের সঙ্গে নিজের দূরত্বকে আরও চওড়া করছেন একদা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ তথা বেহালা পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল বিধায়ক শোভন চট্টোপাধ্যায়। এবার স্পিকারের ফোনেও বরফ গলল না। উল্টে বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দোপাধ্যায়ের করা ফোনে যখন তাকে বিধানসভার মৎস্য এবং প্রাণী সম্পদ স্থায়ী সমিতির চেয়ারম্যান হিসেবে বৈঠকে

রাজ্যের পর্যটনকে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দিতে অভিনব পদক্ষেপ রাজ্য সরকারের, জানুন বিস্তারিত

ক্ষমতায় আসার পরই রাজ্যের পর্যটনকে অন্য মাত্রায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। যার জন্য বিভিন্ন পর্যটন সম্ভাবনাময় স্থানগুলিকে চিহ্নিত করে তার উন্নয়ন করারও চেষ্টা করেছে রাজ্যের পর্যটন দফতর। আর এবার বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপূজাকে কাজে লাগিয়ে সেই পর্যটন মানচিত্রকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাইছে রাজ্য সরকার। সূত্রের খবর, এবার পুজোয়

খুশির ঈদের অনুষ্ঠান মঞ্চে নামাজ! জলপাইগুড়ির ঘটনা শুনলে আপনার চোখেও জল আসবে

ভারত বর্ষ ধর্মনিরপেক্ষ দেশ। এখানে নানা ধর্ম, নানা বর্ণের মানুষ একত্রে বসবাস করে। হিন্দুরা যেমন দুর্গাপুজোতে আনন্দ করে, ঠিক তেমনই মুসলমানরা ঈদে তাদের উৎসব পালন করে। নিজ ধর্মকে সম্মান করেন না এমন ব্যক্তি খুব কমই খুঁজে পাওয়া যাবে এই ভারতভূমিতে। গতকাল সারা দেশ জুড়ে মহাসমারোহে ঈদ পালিত হয়েছে। আর এই ঈদ

পদ পাইয়ে দেওয়ার “টোপ” দিয়ে টাকা হাতিয়েছেন নেতা! তৃণমূল কর্মীর অভিযোগ সোজা কালীঘাটে

ক্ষমতায় আসবার পরই তৃণমূলের বিভিন্ন স্তরে দুর্নীতি বাসা বেঁধেছে বলে বিভিন্ন মহলের তরফে অভিযোগ শোনা যেত। এমনকি বিরোধীদের তরফেও এই ব্যাপারে অভিযোগ করা হয়েছিল। আর দুর্নীতি চরম জায়গায় পৌঁছে যাওয়ার কারণেই যে সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় তৃণমূল খুব একটা ভালো ফলাফল করেনি, তা ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে স্পষ্টভাবে উঠে এসেছে। যার

বিধানসভায় শুধু জেতা নয়, অন্তত 200 আসন জেতার পরিকল্পনা তৈরি গেরুয়া শিবিরের, জানুন বিস্তারিত

লোকসভা নির্বাচনে তাদের টার্গেট ছিল বাংলার 42 টার মধ্যে 23 টা আসন দখল। কিন্তু তারা তাদের টার্গেটে পৌঁছতে না পারলেও তৃণমূলের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলে গত 2014 সালে দুটি আসন পাওয়া বিজেপি এবারে 18 টা আসন নিজেদের দখলে রেখেছে। অন্যদিকে তৃণমূলের আসন সংখ্যা কমে 22 টিতে এসে দাঁড়িয়েছে। আর লোকসভায় সাফল্য পাওয়ার

Top
error: Content is protected !!