এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয়

ফের বড়সড় অস্বস্তিতে মুকুল রায়, 40 লক্ষ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে, দায়ের এফআইআর

কয়েকদিন আগেই একটি মামলায় আদালত থেকে স্বস্তি পেয়েছেন তিনি। মাস ঘুরতে না ঘুরতেই আবার বড়োসড় অস্বস্তি মুখে পড়লেন একদা তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড এবং বর্তমান বঙ্গ বিজেপি চাণক্য নামে পরিচিত মুকুল রায়। জানা যাচ্ছে, রিলিফ স্থায়ী কমিটির সদস্য পদ পাইয়ে দেওয়ার জন্য দফায় দফায় 40 লক্ষ টাকার ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ

বাংলার পরিস্থিতি নিয়ে মোদী এবং শাহকে রিপোর্ট দিলেন রাজ্যপাল, এক ঘন্টারও বেশি বৈঠক, জল্পনা তুঙ্গে

রাজ্যের প্রশাসনিক পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে কেন্দ্র সরকারের আলোচনা অত্যন্ত স্বাভাবিক একটা বিষয়। আইনত রাজ্যপাল হল রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান এবং রাজ্যে নিযুক্ত কেন্দ্র সরকারের দূতও বটে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে রাজ্য সরকারের সঙ্গে কেন্দ্র সরকারের বিবাদ যখন নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং রাজনৈতিক দলগত অবস্থানের দিক থেকেও কেন্দ্রের শাসক দল ভারতীয় জনতা

প্রবল অস্বস্তিতে পি চিদাম্বরম, জেনে নিন বিস্তারিত

এবার আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় প্রবল অস্বস্তিতে পড়লেন দেশের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী। জানা গেছে, বুধবার সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের এজলাসে এই মামলার শুনানি হওয়ার কথা ছিল। তবে মঙ্গলবার দিল্লি হাইকোর্টে এই ব্যাপারে পি চিদাম্বরমের জামিনের আর্জি খারিজ হতেই তার গ্রেফতারের সম্ভাবনা তৈরি হয়ে যায়। রাতেই সিবিআইয়ের লুক-আউট নোটিশ পৌঁছে যায় দেশের

“ভোটের সময় রাজনীতি, এখন কাজের প্রতিযোগিতা হোক” মোদীকে চ্যালেঞ্জ মমতার

লোকসভা নির্বাচনের আগে প্রচারপর্বে দুই দলের দুই হেভিওয়েট নেতা নেত্রী একে অপরকে বিধতে ছাড়েননি। রাজনীতির মসনদে একজন অপরজনকে জোর কটাক্ষও করেছে। তবে নির্বাচনের সময় যাই হোক না কেন, নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে এবার কাজের প্রতিযোগিতা হোক বলে কেন্দ্র সরকারকে বার্তা দিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার বিকেলে

একযোগে বিপাকে দেশের 200 প্রাক্তন সাংসদ? তিন দিনের মধ্যে বন্ধ হতে চলেছে বিদ্যুৎ থেকে জল!

একটা সময় সাংসদের মেয়াদ না থাকার জন্য অধীর চৌধুরীর বাসভবন থেকে তাঁর সমস্ত জিনিসপত্র বের করে দেওয়া হয়েছিল। যা নিয়ে জাতীয় রাজনীতি উত্তাল হতে দেখা গিয়েছিল। এবার কি ফের সেরকম কিছু ঘটতে চলেছে! বস্তুত, সম্প্রতি দেশের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। আর এই নির্বাচনে না দাঁড়ানোয় বা জয়লাভ না করায়

এবার কি জাতপাত মুছে ফেলে অভিন্ন হিন্দুকে এক ছাতার তলায় আনার প্রক্রিয়া শুরু হবে?

বরাবরই দেশের প্রধান দুটি রাজনৈতিক দল জাতীয় কংগ্রেস এবং ভারতীয় জনতা পার্টি দুজনের মাথার উপরই 'পরিবারের' নিয়ন্ত্রণ লক্ষ্য করা যায়। কংগ্রেসের উপরে গান্ধী পরিবার আর ভারতীয় জনতা পার্টির উপরে সঙ্ঘ পরিবার। যেমন গান্ধী পরিবারের ইচ্ছা ভিন্ন কিছু সম্ভব নয় জাতীয় কংগ্রেসে, ঠিক তেমনই সঙ্ঘ পরিবার না চাইলে ভারতীয় জনতা পার্টিও

গান্ধী-আম্বেদকরের সঙ্গে নরেন্দ্র মোদীকে একাসনে বসিয়ে বিতর্ক বাড়ালেন অমিত শাহ

ভারতবর্ষের ইতিহাসে সমাজ সংস্কারকদের কথা আমরা সকলেই জানি। বিভিন্ন সময় সমাজে বিভিন্ন কু-প্রথা থেকে সমাজ সংস্কারক সমাজকে মুক্ত করেছে। এদের মধ্যে রাজা রামমোহন রায়, মহাত্মা গান্ধী, বি আর আম্বেদকর, জ্যোতিবা ফুলে, সাভারকার প্রত্যেকে অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য। কিন্তু এদের পাশে এবার নরেন্দ্র মোদির নাম নিয়ে এসে বিতর্কে জড়ালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তার দাবি,

গ্যাসের ভর্তুকিতে জিএসটির অঙ্ক গুলিয়ে দিচ্ছে গ্রাহকদের প্রাপ্তির হিসাব!

2014 সালে ভারতবর্ষে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত হয় মোদি সরকার। আর মোদি সরকারের পাঁচ বছরের কার্যকালে অর্থাৎ 2014 থেকে শুরু করে 2019 পর্যন্ত যে মহাত্মাকাংখী যোজনাগুলোর কথা বারবার প্রধানমন্ত্রী গলায় উঠে এসেছে, তার মধ্যে অন্যতম উজ্জ্বলা গ্যাস সিলিন্ডার। যে যোজনার মাধ্যমে গরিব ঘরে গৃহিণীদেরকে উনুনের ধোয়া থেকে মুক্তি দেওয়ার দাবি

মোদিকে নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্কে বিজেপি সাংসদ, জেনে নিন কি বললেন তিনি

সারা দেশে স্বাধীনতার প্রাক্কালে চলছে খুশীর হাওয়া । দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ৩৭০ ধারা তুলে কাশ্মীর বিতর্কের অবসান ঘটানোয় তার জনপ্রিয়তা এখন আকাশছোঁয়া । সমগ্র দেশের নাম তিনি বিশ্বের কাছে উজ্জ্বল করেছেন। সামনের দিনে প্রধানমন্ত্রী দেশের জন্য যে আরও বড় পদক্ষেপ নেবেন তা বলাই যায় । বিজেপি শিবিরের সকল সদস্যই

আবার কি গেরুয়া শিবিরে ফিরতে মরিয়া একদা মোদির বিরুদ্ধে ‘বিদ্রোহ’ করা হেভিওয়েট নেতা?

২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচন বহু দিক থেকেই বেশ গুরুত্বপূর্ণ ছিল। একদিকে যখন বিজেপির ইতিহাসে প্রথমবারের জন্য টানা দ্বিতীয়বার পূর্ণ সময়ের কেন্দ্র সরকারে ফেরার লড়াই লড়ছিলেন নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহরা, অন্যদিকে তখন তাঁদের আটকাতে দীর্ঘদিনের বৈরিতা ভুলে হাত মেলাতে উদ্যত হয়েছিলেন সম্মিলিত বিরোধীরা। ফলে লোকসভা নির্বাচনে, একের বিরুদ্ধে এক লড়াইয়ের পরিস্থিতি তৈরী হচ্ছিল। যা

Top
error: Content is protected !!