এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > হাওড়া-হুগলি

বিধানসভার ওপিনিয়ন – এই মুহূর্তে ভোট হলে কি হতে পারে হুগলি জেলার চিত্র?

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ - সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের পর - আরও জমজমাট বঙ্গভূমির রাজনৈতিক লড়াই। একদিকে, লোকসভায় ১৮ টি আসন ছিনিয়ে নিয়ে গেরুয়া শিবির তাল ঠুকছে, এবার তাদের লক্ষ্য নবান্নের অধিকার ছিনিয়ে নেওয়া। অন্যদিকে, স্বয়ং দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধরেছেন দলের সাংগঠনিক হাল, সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রশান্ত কিশোরের মস্তিস্ক। এই পরিস্থিতিতে নিঃসন্দেহে

সরকারি হাসপাতালের “বেড নেই” বলে দায় এড়ানো যাবে না! স্পষ্ট জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

বিভিন্ন সময়ে সরকারি হাসপাতালগুলোতে বেডের অপ্রতুলতা দেখা যায়। পর্যাপ্ত পরিমাণে বেড না থাকার কারণে রোগীদের ভর্তি নেওয়া যাবে না বলেও জানিয়ে দেওয়া হয় হাসপাতালের তরফে। আর রোগী প্রত্যাখ্যানের এই অভিযোগ কমাতে এবার মাঠে নামতে দেখা গেল স্বয়ং স্বাস্থ্যমন্ত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। সরকারি হাসপাতালের বেড না থাকার জন্য দায় এড়ানো

ভদ্রসভ্য মানুষ তৃণমূল করতে পারছে না! তারা মমতার দলে টিকিটে দাঁড়াতেও চাইছে না: ভারতী

এক সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে "মা" বলে অভিহিত করতেন তিনি। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে অবস্থার অনেক পরিবর্তন এসেছে। এক কালে তৃণমূল নেত্রীকে "মা" বলা প্রাক্তন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষ এবার সেই তৃণমূলেরই বিরোধী রাজনৈতিক দল বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন। আর বিজেপিতে নাম লেখানো পর থেকেই রাজ্যের শাসক দল সম্পর্কে বিভিন্ন বিষয়ে মন্তব্য

বিধানসভার ওপিনিয়ন – এই মুহূর্তে ভোট হলে কি হতে পারে হাওড়া জেলার চিত্র?

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ - সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের পর - আরও জমজমাট বঙ্গভূমির রাজনৈতিক লড়াই। একদিকে, লোকসভায় ১৮ টি আসন ছিনিয়ে নিয়ে গেরুয়া শিবির তাল ঠুকছে, এবার তাদের লক্ষ্য নবান্নের অধিকার ছিনিয়ে নেওয়া। অন্যদিকে, স্বয়ং দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধরেছেন দলের সাংগঠনিক হাল, সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রশান্ত কিশোরের মস্তিস্ক। এই পরিস্থিতিতে নিঃসন্দেহে

বড়সড় ধাক্কা দিয়ে এবার গেরুয়া শিবিরে হানা দিলেন রাজ্যের মন্ত্রী

এবারের লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর স্লোগান দিয়েছিলেন। কিন্তু বাস্তবে তার সেই শ্লোগান পরিপূর্ণতা পায়নি। উল্টে 2014 সালে বাংলা থেকে তৃণমূল 34 টা আসন পেলেও এবার তাদের দখলে এসেছে মোটে 22 টি আসন। অন্যদিকে বিজেপি 2 থেকে বড়িয়ে তাদের আসন সংখ্যা 18 করে নিয়েছে। আর তার পর থেকেই

স্কুলের পরীক্ষার প্রশ্নপত্রেও জয় শ্রীরাম, কাটমানির প্রসঙ্গ, জোর চাঞ্চল্য

লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে রাজ্য রাজনীতিতে দুটি বিষয় নিয়ে শাসক দল তৃণমূল বনাম বিরোধী দল বিজেপির মধ্যে তরজা চরম আকার ধারণ করেছিল। যার মধ্যে একটি হল রামধ্বনী এবং অপরটি হল কাঠমানি ইস্যু‌। শাসক দল তৃণমূলের অভিযোগ ছিল, রামের নাম করে বিজেপি বাংলা জুড়ে অশান্ত পরিস্থিতি তৈরির চেষ্টা করছে। অন্যদিকে দুর্নীতি রুখতে

কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কাটমানির পোস্টার কাণ্ডে নয়া মোর, সাংসদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক পুলিশ অফিসার

সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কাটমানির পোস্টার লাগানো নিয়ে জল গড়িয়েছে অনেক দূর। গ্রেফতার হয়েছেন পুলিশ অফিসার হুগলি DIB-র OC সমীর সরকার ৷ আর এর পরেই এই কাণ্ডে নয়া মোর এনে তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন সমীরবাবু। জানা যাচ্ছে যে, শ্রীরামপুর থানার পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করার পর তিনি এই

“হুগলি জেলাকে কেউ কেউ বিজেপির হাতে তুলে দিতে চেয়েছেন” বিস্ফোরক তৃণমূল সাংসদ

লোকসভা নির্বাচনে এবার তৃনমূল 22 এসে দাঁড়িয়েছে। যার ফলে উত্তরবঙ্গ থেকে তারা একটি আসন না পেলেও দক্ষিণবঙ্গ থেকেই প্রায 22 টি আসন ঘাসফুল শিবিরের দখলে এসেছে। তবে এবার নির্বাচনে জয়লাভ করার পরও হুগলি জেলা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করতে দেখা গেল শ্রীরামপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। বস্তুত, এবারে হুগলি লোকসভা

নিগৃহীত অধ্যাপকের পাশে মুখ্যমন্ত্রীর, দিলেন আশ্বাস

ফের অশান্ত শিক্ষাঙ্গন। এবার অধ্যাপককে মারধর।অভিযোগের তীর সেই তৃণমূল ছাত্র পরিষদের দিকে। বস্তুত, বুধবার হুগলির কোন্নগরের নবগ্রাম হীরালাল পাল কলেজে এমএর ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে ডিগ্রী কোর্সের ছাত্র-ছাত্রীদের বচসা তৈরি হয়। জানা যায়, গতকাল এমএ ফাইনাল বর্ষের পরীক্ষা শেষে ছাত্রীরা বেঞ্চে উঠে সেলফি তুলছিলেন। আর সেই সময়ই তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সর্মথকরা তাদেরকে

ফের প্রার্থী দেওয়া নিয়ে তৃনমূলের বিরুদ্ধে বোমা ফাটালেন মুকুল রায়

অনেকদিন হয়ে গেল, তিনি তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছেন। আর গেরুয়া শিবিরে নাম লেখানোর পর থেকেই প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেস ও প্রাক্তন নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ইস্যুতে বিস্ফোরক মন্তব্য করতে দেখা গেছে বঙ্গ বিজেপির চাণক্য মুকুল রায়কে। আর এই মুকুলবাবুর হাত ধরেই এবারের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি বাংলায় ব্যাপক সাফল্য

Top
error: Content is protected !!