এখন পড়ছেন
হোম > Posts tagged "bjp"

নেত্রীর নির্দেশ অমান্য করে ‘বদলা’র ডাক দিলেন তৃণমূল বিধায়ক, জল্পনা তুঙ্গে

2011 সালে বামেদেরকে সরিয়ে ক্ষমতায় বসে তৃণমূল কংগ্রেস। দীর্ঘদিন ধরে বিরোধী আসনে থাকা তৃণমূলের নেতারা তখন বামেদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার আগুনে ফুঁসছিল। কিন্তু সেই সময় তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর দলের সমস্ত নেতাকর্মীদের হাত বেঁধে রেখেছিলেন। "বদলা নয়, বদল চাই" স্লোগান দিয়ে বিরোধীরা যদি কোন রকম অশান্তিও করে, তাহলে

প্রতি মুহূর্তেই দিলীপ ঘোষের নাম দিলেও মুকুল রায়ের নাম একবারও নিচ্ছেন না শোভন? জোর জল্পনা রাজ্যে

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দিয়ে শুরু করে অমিত শাহ, জগৎপ্রকাশ নাড্ডা, অরবিন্দ মেনন, অরুণ সিং এবং বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নাম দিয়ে বিজেপিতে প্রবেশ করে মন্তব্য করেছেন প্রাক্তন তৃণমূল নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে তারই প্রাক্তন দলের প্রাক্তন সৈনিক তথা তার আগে বিজেপিতে যোগ দেওয়া মুকুল রায়ের নাম একবারের জন্য

ফের বড়সড় অস্বস্তিতে মুকুল রায়, 40 লক্ষ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে, দায়ের এফআইআর

কয়েকদিন আগেই একটি মামলায় আদালত থেকে স্বস্তি পেয়েছেন তিনি। মাস ঘুরতে না ঘুরতেই আবার বড়োসড় অস্বস্তি মুখে পড়লেন একদা তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড এবং বর্তমান বঙ্গ বিজেপি চাণক্য নামে পরিচিত মুকুল রায়। জানা যাচ্ছে, রিলিফ স্থায়ী কমিটির সদস্য পদ পাইয়ে দেওয়ার জন্য দফায় দফায় 40 লক্ষ টাকার ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ

বৈশাখীর ব্যবহারে ক্ষোভ বাড়ছে বিজেপির অন্দরে, জোর চাঞ্চল্য রাজ্য বিজেপিতে

রাজ্য-রাজনীতিতে অনেক জল্পনা-কল্পনার যোগ-বিয়োগ ঘটিয়ে অবশেষে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন এই মুহূর্তে বঙ্গ-রাজনীতির অন্যতম 'চর্চিত জুটি' শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু যোগদানের পর থেকেই বৈশাখীদেবীকে নাকি সামলাতে রীতিমতো বেগ পেতে হচ্ছে রাজ্য বিজেপিকে - বলে শুরু হয়েছে তুমুল জল্পনা। শুরুটা হলো এদিন যখন রাজ্য বিজেপির মিডিয়া সেল শোভন চট্টোপাধ্যায়কে রাজ্য

লোভ সংবরণ করুন – নিজের দল ও প্রশাসনকে বড়সড় বার্তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

লোকসভা নির্বাচনে তার দলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পেছনে নেতাদের দুর্নীতি যে অনেকাংশেই দায়ী, তা বুঝতে বাকি নেই তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আর তাইতো খারাপ ফলাফল নজরে আসার পরই কেউ দুর্নীতি করলে তার টাকা তাকেই ফেরত দিতে হবে বলে জানিয়ে দিতে দেখা গিয়েছিল সেই তৃনমূল নেত্রীকে। আর প্রশাসনিক প্রধানের এই

“ভোটের সময় রাজনীতি, এখন কাজের প্রতিযোগিতা হোক” মোদীকে চ্যালেঞ্জ মমতার

লোকসভা নির্বাচনের আগে প্রচারপর্বে দুই দলের দুই হেভিওয়েট নেতা নেত্রী একে অপরকে বিধতে ছাড়েননি। রাজনীতির মসনদে একজন অপরজনকে জোর কটাক্ষও করেছে। তবে নির্বাচনের সময় যাই হোক না কেন, নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে এবার কাজের প্রতিযোগিতা হোক বলে কেন্দ্র সরকারকে বার্তা দিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার বিকেলে

গান্ধী-আম্বেদকরের সঙ্গে নরেন্দ্র মোদীকে একাসনে বসিয়ে বিতর্ক বাড়ালেন অমিত শাহ

ভারতবর্ষের ইতিহাসে সমাজ সংস্কারকদের কথা আমরা সকলেই জানি। বিভিন্ন সময় সমাজে বিভিন্ন কু-প্রথা থেকে সমাজ সংস্কারক সমাজকে মুক্ত করেছে। এদের মধ্যে রাজা রামমোহন রায়, মহাত্মা গান্ধী, বি আর আম্বেদকর, জ্যোতিবা ফুলে, সাভারকার প্রত্যেকে অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য। কিন্তু এদের পাশে এবার নরেন্দ্র মোদির নাম নিয়ে এসে বিতর্কে জড়ালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তার দাবি,

BIG BREAKING – বড় ভাঙন ধরিয়ে শক্তিবৃদ্ধি করলো বিজেপি, ৬০ বিশিষ্ট নেতার যোগদান গেরুয়া শিবিরে

তেলেঙ্গানায় বড়সড় ভাঙ্গন ধরিয়ে শক্তিবৃদ্ধি করলো বিজেপি। জানা যাচ্ছে ৬০ জন বিশিষ্ট টিডিপি নেতা এবং হাজারো কর্মী সমর্থক এদিন বিজেপিতে যোগদান করেন। জানা যাচ্ছে এদিন বিজেপির কার্যকরী সভাপতি জেপি নাড্ডা দলবদলকারী নেতাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন। তিনতালাক এবং ৩৭০ ধারা বিলোপে খুশি হয়ে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন বলে দাবি বিজেপির।

তৃণমূল থেকে বিজেপিতে এসে গ্রেফতার – চাঞ্চল্য তৃণমূল,বিজেপিতে

লোকসভা ভোটের পর থেকেই বিজেপির পালে হাওয়া লাগার ফলে রীতিমত অস্বস্তিতে শাসকদল তৃণমূল।বিজেপির দাবি যারাই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি তে যাচ্ছে তাদের নামেই লাগছে অ্যালিগেশন। আর এই সব নিয়েই শুরু হয়েছে দুই দলের মধ্যেচাপানউতোর। জানা যাচ্ছে যে, তৃণমূলের অ্যালিগেশনের লিষ্টে নবতম সংযোজন হালিশহরের প্রাক্তন উপ পুরপ্রধান রাজা দত্ত। অভিযোগ বিজেপির মিছিলে যোগ

শোভন-বৈশাখীর জন্য বড়সড় সুখবর বিজেপির তরফ থেকে, জেনে নিন

জল্পনাকে সত্যি করে কদিন আগেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়র ও রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী শোভন চ্যাটার্জী। সঙ্গে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তাঁর বিশেষ বান্ধবী বৈশাখী চাটার্জিও। আর তারপরেই তাঁকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয় তৃণমূল। এরপর শোভনের উপর কপি ফেলে রাজ্য সরকার তাঁর নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে নেয়। মন্ত্রিত্ব ও মেয়র পদ চলে

Top
error: Content is protected !!